অভিনেতা আহমেদ রুবেলের ইন্তেকাল

শেয়ার করুণ

বাংলা নাটক ও চলচ্চিত্রের শক্তিশালী অভিনেতা আহমেদ রুবেল মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)।

আজ বুধবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে তার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন নির্মাতা নুরুল আলম আতিক। মৃত্যুর সময় তার বয়স ছিল ৫৫ বছর।

জানা গেছে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সন্ধ্যা ছয়টার দিকে মারা গেছেন এই অভিনেতা।

এদিন সন্ধ্যায় নুরুল আলম আতিকের নতুন সিনেমা ‘পেয়ার সুবাস’-এর বিশেষ প্রদর্শনীতে যোগ দেওয়ার কথা ছিল আহমেদ রুবেলের। পরিচালক বলেন, আজ সন্ধ্যায় আমাদের ‘পেয়ার সুবাস’ সিনেমার বিশেষ প্রদর্শনী ছিল। এ সিনেমায় অভিনয় করেছেন আহমেদ রুবেল। তিনি প্রদর্শনীতেই যোগ দিতে আসছিলেন। হঠাৎ অসুস্থ বোধ করলে তাকে স্কয়ার হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আহমেদ রুবেলই ছিলেন বাংলাদেশের একমাত্র ‘ফেলুদা’
একুশে টেলিভিশনের আলোচিত ধারাবাহিক নাটক ‘প্রেত’-এ অভিনয় করে দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছিলেন আহমেদ রুবেল। আহির আলম পরিচালিত প্রেত নাটকের গল্পটি লিখেছিলেন ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। তারপর থেকে নাটকে ও সিনেমায় ব্যস্ততা ক্রমশ বেড়েছে তার।

একসময় নন্দিত লেখক হুমায়ুন আহমেদের পরিচালনায় অভিনয় শুরু করেন। তার পরিচালিত ‘শ্যামল ছায়া’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন আহমেদ রুবেল। অনেকগুলো ধারাবাহিক নাটকেও অভিনয় করেছেন তিনি। এর মধ্যে রয়েছে সালাউদ্দিন লাভলুর ‘রঙের মানুষ’ ও মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘৬৯’।

১৯৬৮ সালের ৩ মে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের রাজারামপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন আহমেদ রুবেল। তার পিতার নাম আয়েশ উদ্দিন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের ইসলামপুর মহল্লায় তার মাতুতালয়। তবে ছোটবেলা থেকেই বেড়ে উঠেছেন ঢাকায়। গাজীপুরে দীর্ঘদিন বসবাস করেছেন।

সেলিম আল দীনের ‘ঢাকা থিয়েটার’ থেকে আহমেদ রুবেলের অভিনয়ের হাতেখড়ি। তার অভিনীত প্রথম নাটক গিয়াস উদ্দীন সেলিমের ‘স্বপ্নযাত্রা’। ১৯৯৩ সালে ‘আখেরি হামলা’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। পরবর্তীতে তিনি অভিনয় করেছেন ‘চন্দ্রকথা’, ‘ব্যাচেলর’, ‘গেরিলা’,‘দ্য লাস্ট ঠাকুর’, ‘গেরিলা’, ‘মেঘলা আকাশ’, ‘আলফা’, ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’সহ আরও বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে।

নিউজটি শেয়ার করুণ