না.গঞ্জে অস্ত্র ও বিষ্ফোরক সহ ছাত্রদলের ৪ নেতা আটক

শেয়ার করুণ

নারায়ণগঞ্জ রূপগঞ্জে মহাসড়কে অবরোধ, গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও নাশকতার সাথে জড়িত ঘটনায় ককটেল,পেট্রোলবোমা ও আগ্নেয়াস্থসহ জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি সুলতানসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ সোমবার (৬ নভেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) গোলাম মোস্তফা রাসেল।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি সুলতান মাহমুদ, রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সদস্য সচিব মাসুদুর রহমান, সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আরিফ বিল্লাহ ও দাউদপুর ইউনয়ন ছাত্রদল নেতা তৌহিদ হাসান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত ২৮ অক্টোবর থেকে বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদের নিদের্শনায় গ্রেপ্তারকৃতরা ঢাকাসহ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ও আড়াইহাজার থানাধীন মহাসড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধ, গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগসহ নাশকতা করে আসছিল। ৬ নভেম্বর ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রূপগঞ্জ থানার একটি চৌকস টিম রুপগঞ্জ থানাধীন দাউদপুর ইউনিয়নের কাজিরবাগ এলাকার জনৈক সাইফুল ইসলামের দোতলা বাড়ি থেকে ১২টি ককটেল, ১০টি পেট্রোল বোমা, ০১টি বিদেশী পিস্তল ও ম্যাগজিনসহ তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তাররা রুপগঞ্জ ও আড়াইহাজার থানায় বিএনপি ও জামায়াতের হরতাল ও অবরোধে গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের পরিকল্পনায় ও ঘটনায় জড়িত বলে স্বীকার করে। তাদের মোবাইলের সংরক্ষিত ম্যাসেজ, কথোপকথন, ছবি ও ভিডিও পর্যালোচনা করে জড়িত থাকার প্রমান পাওয়া যায়। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় নাশকতার একাধিক মামলা রয়েছে। তাদের সাথে জড়িত অন্যান্য সহযোগী ও হুকুমদাতাদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

এ ঘটনায় রূপগঞ্জ থানায় গ্রেপ্তার ও পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

নিউজটি শেয়ার করুণ