না.গঞ্জে ছিনতাইকারীদের হামলায় আহত মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু

শেয়ার করুণ

ছিনতাইকারীর হামলার শিকার মাদ্রাসা শিক্ষার্থী যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে ধানমন্ডি পপুলার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এর আগে ঘটনার পর সোমবার (২২ এপ্রিল) ভিকটিমের মামা শেখ মো. আল-ইমাম ২ জন অজ্ঞাত ছিনতাইকারীর বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। তথ্যটি লাইভ নারায়ণগঞ্জকে নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর (অফিসার ইনচার্জ) আবু বকর সিদ্দিক।

নিহত যুবকের নাম মো. সিফাত (১৮)। সে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১নং ওয়ার্ডের সিদ্ধিরগঞ্জ পাইনাদী নতুন মহল্লা এলাকার মো. জুম্মন মিয়ার ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৯ এপ্রিল বিকেলে তার ভাগিনা ভিকটিম সিফাতের মাদ্রাসা বন্ধ থাকার সুবাদে তার বন্ধু সাগর শেখ (১৯) কে নিয়ে ঘুরতে বের হন। ঘুরাফেরা শেষে রাত ৮ টা ৪৫ মিনিটের সময়ে তারা উভয়য়ে বাড়ি ফেরার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে ঢাকা—চট্টগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল মোড় অংশে আসামাত্রই ২ জন অজ্ঞাজনামা ছিনতাইকারী পথ আটক দেয়। এরপর তাদের সঙ্গে থাকা নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। তখনই তাৎক্ষণিক ভিকটিমের সঙ্গে থাকা বন্ধু কৌশলে ছিনতাইকারেীদের হাত থেকে পালিয়ে যান। এমত অবস্থায় ভিকটিমকে একা পেয়ে ধারালো চাকু দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে রক্ত জখম করে ওই ঘাতকরা। মারধরের একপর্যায়ে সিফাতের সঙ্গে থাকা নগদ দুই হাজার টাকা ও তার মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে দ্রুতই স্থান ত্যাগ করে তারা।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে ভিকটিম সিফাতের মামা আল ইমাম জানান, মঙ্গলবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার ভাগিনার মৃত্যু হয়েছে। গেলো শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটলে তারা আহত অবস্থায় সিফাতকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। তবে ঢাকা মেডিকেলে আইসিইউর ব্যবস্থা না থাকায় ধানমন্ডি ভর্তি করান। পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্যে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পুলিশ হাসপাতালে গিয়েছিল। আমরা লাশ নিয়ে দৌড়াদৌড়িতে থাকায় যোগাযোগ হয়নি।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর (অফিসার ইনচার্জ) আবু বকর সিদ্দিক জানায়, এই ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ছিনতাইকারীদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে। খুব শীঘ্রই আসামীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

সুত্র: লাইভ নারায়ণগঞ্জ

নিউজটি শেয়ার করুণ