না.গঞ্জে ট্রলার ডুবির ঘটনায় ৩ জনের মৃতদেহ উদ্ধার

শেয়ার করুণ

নারায়ণগঞ্জের ধলেশ্বরী নদীতে ট্রলারডুবির ২দিন পর ভেসে উঠেছে ৩ ব্যাক্তির লাশ। গত ১ জানুয়ারি ভোর ৬টার দিকে ডিক্রিরচর গুদারাঘাটে ট্রলার ডুবির ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে আলীরটেক ইউনিয়নের ডিক্রিরচর গুদারাঘাট এলাকা থেকে বুধবার (৩ জানুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে লাশ ৩টি উদ্ধার করে করেছে নৌ-পুলিশ।

নিহতরা হলেন- আলীরটেক ইউনিয়নের কুড়েরপাড় এলাকার মৃত নূর ইসলামের পুত্র মো. বাবুল মিয়া (৪৭), পুরান গোগনগরের মৃত মতি মিয়ার পুত্র মো. সেলিম (৪০) ও একই এলাকার মৃত মানিক মিয়ার পুত্র জালাল মিয়া (৫১)।

জানা গেছে, গত ১ জানুয়ারি বরিশাল থেকে আসা ঢাকাগামী একটি লঞ্চের ধাক্কায় যাত্রীসহ ডুবে যায় একটি ট্রলার।

বিআইডব্লিউটিএর নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের উপ-পরিচালক বাবু লাল বৈদ্য জানান, ট্রলারডুবির সময় আনুমানিক ১৫-২০ জন যাত্রী ছিল। অধিকাংশ যাত্রী সাঁতরিয়ে উপরে উঠতে পারলেও তিন যাত্রী নিখোঁজ ছিলেন। তাদের উদ্ধারে বিআইডব্লিউটিএ, নৌ-পুলিশ, কোস্টগার্ড ও ফায়ার সার্ভিস অভিযান পরিচালনা করেছে।

বক্তাবলী নৌ পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, নিখোঁজের ৩ দিন পর সকাল ৮টার দিকে ঘটনাস্থলের ১০০ গজ দূরে লাশ ৩টি ভেসে উঠে। তাদের উদ্ধার করে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, এই ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ মদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অজ্ঞাতনামা ওই লঞ্চের মালিক ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে নিহত বাবুল মিয়ার মেয়ে বিথি আক্তার বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

নিউজটি শেয়ার করুণ