ফতুল্লায় মাদক বিরোধী অভিযান চালাতে এসে হামলার শিকার কর্মকর্তা

শেয়ার করুণ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় মাদক বিরোধী অভিযান চালাতে গিয়ে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের ৩ কর্মকর্তাসহ ৭ জনকে অবরুদ্ধ করে রাখেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের কর্মকর্তাদের উদ্ধার করে ফতুল্লা থানা পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে ফতুল্লার মুসলিমনগর এলাকায় এঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সাদা পোষাকে একজন নারীসহ ৬/৭জন লোক মুসলিমনগর এলাকার মৃত. চাঁন মিয়ার ছেলে শাকিলের বাসায় যায়। তখন শাকিল চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এসে ঘটনা জানতে চায়। ওইসময় শাকিল বলেন তার মুখে এসিড নিক্ষেপ করেছে। এতে স্থানীয় লোকজন ফুসে উঠে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীদের মধ্যে একজনকে মারধর করেন। পরে স্থানীয় লোকজন জানতে পারেন তারা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের কর্মকর্তা।

এবিষয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের উপ-পরিদর্শক ফয়েজ আহমেদ জানান, আমরা কর্মকর্তা কর্মচারীসহ ৭জন মুসলিমনগর সড়ক দিয়ে একটি মাদক বিরোধী অভিযানে যাচ্ছিলাম। এসময় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের গাড়ি দেখে একজন ছেলে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। তখন শাকিল নামে একজনকে আটক করা হয় এবং তার কাছ থেকে ৪৪ পিছ ইয়াবা পাওয়া যায়। এসময় তার বাড়িতে আরো মাদক আছে কিনা দেখার জন্য তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। ওইসময় শাকিলকে ছাড়িয়ে নিতে তার লোকজন এসে আমাদের উপর হামলা চালায়। এতে আমাদের একজন কর্মচারী আহত হয় এবং শাকিলও আহত হয়। তবে তার মুখে আমরা কেউ কিছুই ছিটিয়ে দেয়নি। এবিষয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি নূরে আজম জানান, খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অফিসের গাড়িসহ ৭ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। সেখান থেকে আহত অবস্থায় শাকিল নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। এবিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।মাদক ব্যবসায়ী শাকিল ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মাদক মামলা রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুণ