ফেসবুকে আবেগঘন পোস্ট দিয়ে ‘শেষবিদায়’ জানাচ্ছেন গাজার মানুষ

শেয়ার করুণ

গাজা উপত্যকায় অনবরত বিমান দিয়ে গোলাবর্ষণ করছে ইসরাইল। চারদিকে কামান ও সাঁজোয়া যান নিয়ে স্থলভাগে সামরিক অভিযান চালানোর অপেক্ষায় রয়েছে পদাতিক বাহিনী। এর মধ্যে ইসরায়েলি বাহিনীর আলটিমেটাম পেয়ে জীবন হাতে নিয়ে উত্তর থেকে দক্ষিণে ছুটছে গাজার মানুষ।

আক্রমণের তীব্রতা ও ভয়াবহতা গাজার ২৩ লাখ ফিলিস্তিনিকে যেন মৃত্যুর আতঙ্ক গ্রাস করেছে। কিন্তু ৭৫ বছরের সংঘাতে ইতিহাস বলে ইসরায়েলি হামলায় মৃত্যুর জন্য গাজার মুসলিমরা মোটামুটি প্রস্তুত থাকেন। গতকাল শহর ছাড়ার আলটিমেটাম পেয়ে গাজার মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়ে সেভাবে প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন, তাতে এর প্রমাণ মেলে।

তুর্কি সংবাদমাধ্যম আনাদোলুর প্রতিবেদনে বলা হয়, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে মৃত্যুর আশঙ্কা প্রকাশ করে ‘শেষবিদায়’ জানাচ্ছেন গাজাবাসী। কারও প্রতি অন্যায় হয়ে থাকলে ক্ষমা চাচ্ছেন তাঁরা।

ইহাব আর সুলাইমান নামের একজন ফেসবুক পোস্টে বলেন, ‘কারও দাবি থাকলে ক্ষমা করে দিন। আমি আপনাকে ক্ষমা করে দিয়েছি, তাই দয়া করে আমাকেও ক্ষমা করে দিন।’

অনেকেই ‘শেষবিদায়’ জানানোর পর আর কিছু পোস্ট করেননি।

ইসরায়েলের চ্যানেল ১৪ টেলিভিশনের প্রতিবেদন অনুসারে, ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী স্থলপথে গাজায় সামরিক অভিযানের প্রস্তুতি নিচ্ছে। এখন রাজনৈতিক অনুমোদনের অপেক্ষা।

এতে বলা হয়, ইসরায়েলি বাহিনী সেখানে (গাজায়) আরও কয়েক মাস থাকতে প্রস্তুত। এই পর্যায়ে সেনাবাহিনীর স্পষ্ট লক্ষ্য হচ্ছে, গাজা উপত্যকাকে নিরস্ত্র করা।

এ প্রতিবেদনের বিষয়ে ইসরায়েল কর্তৃপক্ষ থেকে এখনো কোনো বিবৃতি আসেনি।

তবে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী উল্লেখ করেছে যে বিমানবাহিনী হামাস ও ইসলামিক জিহাদ আন্দোলনের ব্যবহৃত এলাকায় ছয় হাজার বোমা নিক্ষেপ করেছে এবং গাজায় বড় আকারের বিমান হামলা চালিয়েছে।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসের সঙ্গে ইসরায়েলের চলমান যুদ্ধ সপ্তম দিনে গড়িয়েছে। এই সময়ের মধ্যে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় ইসরায়েলি হামলায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন অন্তত ১ হাজার ৯০০ মানুষ। আহত হয়েছে সাড়ে ৭ হাজারেরও বেশি। অন্যদিকে, হামাসের হামলায় নিহত হয়েছে অন্তত ১ হাজার ৩০০ ইসরায়েলি।

গাজায় পানি, বিদ্যুৎ এবং ইন্টারনেটের সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। অবরুদ্ধ গাজার স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের তথ্যমতে, ইসরায়েলি বিমান হামলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৩২০ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। যার ৬৬ শতাংশই নারী ও শিশু। ইসরায়েলি বিমান হামলায় গত ২৪ ঘণ্টায় আহতের সংখ্যা এক হাজারের বেশি।

এরই মধ্যে লাখ লাখ বেসামরিক ফিলিস্তিনিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গাজা উপত্যকা ছেড়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। আজ সকাল ৮টায় এই সময় শেষ হয়ে গেছে। তবে যুক্তরাষ্ট্র সময় বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছে।​​​

নিউজটি শেয়ার করুণ