বিএনপি-জামাতকে না.গঞ্জ ছাড়া করতে ১৫ মিনিট লাগবে: শামীম ওসমান

শেয়ার করুণ

বিএমপি-জামায়াতের লোকজনকে ১৫ মিনিটের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ ছাড়া করতে পারেন বলে মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

কর্মসূচির নামে ‘আগুন সন্ত্রাস’ না করার জন্যও হুঁশিয়ারি দেন সরকারদলীয় এ নেতা৷

আজ বুধবার (১ নভেম্বর) বিকেলে ফতুল্লা স্টেডিয়াম এলাকায় নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল পার্কে দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে এক সভায় তিনি এই মন্তব্য করেন।

হুঁশিযারি দিয়ে শামীম ওসমান বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াতকে বলি, আর আগুন সন্ত্রাস কইরেন না। এইবার থামেন। আপনারা আগুন দিয়ে মানুষ পোড়াবেন, গাড়ি পোড়াবেন, জনগণ চেয়ে চেয়ে দেখবে? জনগণ খেপে গেলে কিন্তু আপনাদের বাড়ি-ঘরে হামলা দেবে। বিএনপি-জামায়াতকে নারায়ণগঞ্জ ছাড়া করতে আমাদের মাত্র ১৫ মিনিট সময়ও লাগবে না। এইটা মাথায় রাইখেন।’

আগামী ৪ নভেম্বর রাজধানীর শাপলা চত্ত্বরে সমাবেশ ডেকেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ৷ এই সমাবেশে যোগদানের ব্যাপারে প্রস্তুতি সভার আয়োজন করেন সরকারদলীয় এ সংসদ সদস্য৷

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের মহাসমাবেশের পর বিএনপি নাকে খত দিয়ে নির্বাচনে আসতে বাধ্য হবে৷ নির্বাচনে আসা ছাড়া বিএনপির আর কোন পথ নেই।

গত ২৮ অক্টোবর ঢাকায় বিএনপির সমাবেশের চেয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে অধিক লোকসমাগম হয়েছিল বলে দাবি করেন এ নেতা৷
শামীম ওসমান আরও বলেন, ‘এরা ক্ষমতায় না এসেই পুলিশ কোপাতে পারে, আগুন দিয়ে মানুষ পোড়াতে পারে, প্রধান বিচারপতির বাড়িতে হামলা করতে পারে, মহিলাদের গায়ের কাপড় টেনে খুলে ফেলতে পারে, তাহলে এখন প্রশ্ন আসে এরা ক্ষমতায় এলে কী করতে পারে? আসলে এরা কোনদিন ক্ষমতায় আসতে পারবে না।’

আগামী কয়েকদিন দলীয় নেতাকর্মীকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেন তিনি৷

‘আর কিছুদিন পরে ওরা হায়েনার রূপ নেবে। সবাই যার যার এলাকায় কার সাথে বসছেন কোথায় বসছেন দেখে শুনে বসবেন। খোলা পরিবেশে কেউ বসবেন না। ওরা কিন্তু আর কিছুদিন পর হায়েনার রূপ নিবে। পরাজিত শক্তি যখন দেখবে হেরে গেছে তখন ওরা কিন্তু মরণ কামড় দিবে। ওরা আমাকে খোঁজে। ওরা আওয়ামী লীগের কাকে কাকে টার্গেট করেছে আমি জানি। নিশ্চিন্ত থাকেন, ইনশাল্লাহ শেখ হাসিনাই প্রধানমন্ত্রী হবেন। জীবনের শেষ নি:শ্বাস পর্যন্ত নেত্রীর নির্দেশের বাইরে কোন কাজ করবো না।’, বলেন শামীম ওসমান৷

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বাবু চন্দন শীল, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ মোহাম্মদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, যুগ্ন সম্পাদক শাহ নিজাম, মহানগর যুবদলের সভাপতি শাহাদাত হোসেন ভূঁইয়া সাজনু, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান, বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এম এ রশিদ, বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধান, সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান সামছুল ইসলাম ভু্‌ইয়া, সিনিয়র সহ-সভাপতি ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুম, সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি কায়সার হাসনাত, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী ও এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান এ সভায় উপস্থিত ছিলেন৷

নিউজটি শেয়ার করুণ