ভাইয়া গ্রুপের অত্যাচারে আম্মা গ্রুপের লোকজন সাইডলাইনে: শামীম ওসমান

শেয়ার করুণ

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি একে এম শামীম ওসমান বলেছেন, বিএনপিতে ভাইয়া গ্রুপের অত্যাচারের বর্হিপ্রকাশ তৃণমূল বিএনপি। আমি বারবার বলে আসছিলাম বিএনপিতে দুটি গ্রুপ বিদ্যমান। একটি আম্মা গ্রুপ অপরটি ভাইয়া গ্রুপ। আম্মা গ্রুপ মোটামুটিভাবে ভাইয়া গ্রুপের অত্যাচারে লাথি খেয়ে সাইডলাইনে চলে গেছে। আম্মা গ্রুপের সাইডলাইনে চলে যাওয়ারই বর্হিপ্রকাশ হচ্ছে তৃণমূল বিএনপি।

আজ বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর জেলা সমাবেশ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান আরও বলেন, সব দলেই ভালো খারাপ আছে। আমি ছোটো বেলা দেখেছি নারায়ণগঞ্জে জালাল হাজী সাহেব, কালাম সাহেব, তৈমূর আলম খন্দকার সাহেব ও সিরাজ সাহেব বিএনপিকে সংগঠিত করেছে। যদিও আমি তাদের আদর্শকে পছন্দ করি না। কিন্তু এরা করেছে, পরিশ্রমও করেছে। এ লোকগুলোকে সময় মতো এসে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

শামীম ওসামন বলেন, আমার মনে হয় লন্ডন থেকে বসে যিনি দেশ চালানোর চেষ্টা করছেন উনার টার্গেট রাজনীতি না। দেশটাকে অকেজো করা কিংবা অকার্যকর রাষ্ট্র করা। অকার্যকর রাষ্ট্র চালাতে যে ধরনের নেতৃত্ব দরকার উনি তাদেরকে বেছে নিয়েছেন। আর বেছে নিয়েছেন দেখেই আমার মনে হয় এ সমস্ত লোকরা একটা সময় বেরিয়ে আসবেন। এটা তো মাত্র শুরু হলো। আরও বহু লোক এ দল থেকে বেরিয়ে আসবেন।

নিজের দল আওয়ামী লীগের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ তার নিজস্ব গতিতে চলে। বিএনপি ভাঙলো কি গড়লো এটা নিয়ে আমাদের কোনো সমস্যা নাই। জাতির পিতার কন্যা দুটি জিনিসের ভরসা করেন। এক হচ্ছে সৃষ্টিকর্তা যিনি উনাকে ২১ বার হত্যা থেকে বাঁচিয়েছেন। আরেকটা হচ্ছে জনগণ যাদের দোয়ায় তিনি প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন।

এ সময় সঙ্গে আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চন্দনশীলসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

নিউজটি শেয়ার করুণ